লেখা নকল করে ধরা খেলেন ঢাবি শিক্ষক সামিয়া রহমান!

বিখ্যাত দার্শনিক ও চিন্তাবিদ মিশেল ফুকোর লেখা ‘দ্য সাবজেক্ট অ্যান্ড পাওয়ার’ শীর্ষক আর্টিকেলটি ইউনিভার্সিটি অফ শিকাগো প্রেস ১৯৮২ সালে প্রকাশ করে। এই আর্টিকেল থেকেই পৃষ্ঠার পর পৃষ্ঠা চুরি করে নিজের নামে ছাপিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক ও নিউজ২৪ টিভি চ্যানেলের কারেন্ট এফেয়ার্স এর প্রধান সামিয়া রহমান এবং ক্রিমিনোলজি বিভাগের শিক্ষক সৈয়দ মাহফুজুল হক মারজানের বিরুদ্ধে। অভিযোগ করেছে স্বয়ং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত প্রকাশনা সংস্থা ইউনিভার্সিটি অফ শিকাগো প্রেস।

এক লিখিত অভিযোগপত্রের মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে এই চুরির অভিযোগ এর কথা জানিয়েছে ইউনিভার্সিটি অফ শিকাগো প্রেস। উন্নত দেশগুলোতে একাডেমিক চৌর্যবৃত্তি (Plagiarism) একটি ভয়ঙ্কর অপরাধ এবং এর কারণে দোষী সাব্যস্ত হলে যেকোনো শিক্ষক/গবেষক/ছাত্রের একাডেমিক জীবনের ইতি ঘটতে দেখা যায়। তবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আপাতত কেবল তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিন্ডিকেট সদস্যরা। এছাড়া অন্য আরেকটি অভিযোগে আরো একটি কমিটি গঠিত হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় মঙ্গলবার রাতে কমিটি দুটি গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিন্ডিকেট সদস্যরা।

সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক নাসরিন আহমাদকে প্রধান করে এই দুটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিকে আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

জানতে চাইলে আরেক সিন্ডিকেট সদস্য নীলিমা আকতার জানান, যৌথ দুটি গবেষণা প্রবন্ধের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক সামিয়া রহমান এবং ক্রিমিনোলজি বিভাগের শিক্ষক সৈয়দ মাহফুজুল হক মারজানের বিরুদ্ধে একটি কমিটি গঠন করা হয়।

ইউনিভার্সিটি অফ শিকাগো প্রেস এর পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে এ অভিযোগ পাঠানো হয়েছিল। সামিয়া রহমান ও সৈয়দ মাহফুজুল হক মারজানের চুরি করা লেখা মূলত প্রকাশিত হয়েছিল Critical Inquiry জার্নালের ১৯৮২ সালের ৮ম ভলিউম এর ৪ নম্বর সংখ্যায়; যার আসল লেখক মিশেল ফুকো (Michel Foucault)। “ওই জার্নালের অভিযোগ, তাদের দুটি গবেষণা প্রবন্ধে ওই জার্নালের প্রবন্ধের পৃষ্ঠার পর পৃষ্ঠা কপি করা হয়েছে। তদন্ত কমিটি এটা খতিয়ে দেখবে।” ইউনিভার্সিটি অফ শিকাগো জার্নালের সম্পাদক এই অভিযোগ করেছেন বলে জানান আরেকজন সিন্ডিকেট সদস্য।

বেসরকারি টেলিভিশনে পূর্ণকালীন চাকরি করে আসা সামিয়া রহমান বর্তমানে নিউজ টোয়েন্টিফোরের হেড অব কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স। এর আগে তিনি একাত্তর টিভি, এনটিভি ও একুশে টিভিতে কাজ করেন। সাংবাদিকতার ছাত্র মারজানও একাত্তর টিভিতে কাজ করেছেন।

অন্য তদন্ত কমিটি ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের শিক্ষক রুহুল আমিন ও নুসরাত জাহান এবং বদরুজ্জামান ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে গবেষণায় চৌর্যবৃত্তির পৃথক দুটি অভিযোগ তদন্ত করবে।

সিন্ডিকেট সদস্য নীলিমা আকতার বলেন, “বিভাগের একটি সিলেকশন কমিটিতে সিনিয়র একজন শিক্ষক রুহুল আমিন ও নুসরাত জাহানের প্রকাশিত প্রবন্ধগুলোর মধ্যে মিল খুঁজে পাওয়ার কথা জানান। যাতে একটি বিষয় নিয়ে কয়েকটি প্রবন্ধ করা হয়েছে। সেটি একটি অভিযোগ।

“পরবর্তীতে আরেক শিক্ষক বদরুজ্জামানের বিরুদ্ধে পিএইচডি থিসিসে প্লেইজারিজমের অভিযোগ করেন নুসরাত জাহান।” এই দুটি পৃথক অভিযোগের তদন্ত একটি কমিটি করবে বলে জানান এই সিন্ডিকেট সদস্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *