সুন্দরী স্কুলছাত্রীদের তুলে এনে ‘যৌনদাসী’ বানান কিম!

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি কিম জং উনের ব্যাপারে বিস্ফোরক সব তথ্য প্রকাশ্যে এল। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম মিরর-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, স্কুলছাত্রীদের যৌনদাসী করে রেখে দেন কিম।
এমন তথ্যই ফাঁস করেছেন কিমের এক প্রাক্তন অফিসারের ছেলে হি ইয়ন লিম (প্রতীকী নাম)। কিমের ব্যাপারে আরও অনেক ভয়ঙ্কর তথ্য সামনে এনেছেন তিনি।

ওই ব্যক্তি জানিয়েছেন, একেবারে রাজার মত জীবন যাপন করেন কিম জং উন। যখন-তখন, যাকে তাকে হত্যার নির্দেশ দেন। রিপোর্ট অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত আড়াই কোটি মানুষকে জেলে ঢুকিয়েছেন কিম। পর্নোগ্রাফিক ভিডিও তৈরি করার অভিযোগে ১১ জনকে প্রকাশ্যে হত্যাও করা হয়। আর কিম জং উন ভীতু বলেই বারবার পরমাণু হামলার হুমকি দেন বলে উল্লেখ করেন হি।

হি আরও জানিয়েছেন, স্কুল থেকে ছাত্রীদের তুলে নিয়ে আসে কিমের কর্মকর্তারা। পিয়ংইয়ং জুড়ে থাকা কয়েক’শ গোপন বাড়ি রয়েছে কিমের। সেখানে নিয়ে যাওয়া হয় তাদের। হি আরও উল্লেখ করেছেন, যেসব মেয়েরা সুন্দরী ও সুন্দর পা রয়েছে তাদেরই নিয়ে আসার নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপর তারা হয়ে যায় কিমের যৌনদাসী। কিভাবে কিমকে খাবার পরিবেশন করতে হবে, সেটাও শিখতে হয় তাদের। কিমের সঙ্গে শুতে হয় ওই ছাত্রীদের, তবে কোনও ভুল করা যাবে না আর কোনও অভিযোগ তোলাও যাবে না। আর যদি তারা গর্ভবতী হয়ে পড়ে তাহলে তারা যে কোথায় নিখোঁজ হয়ে যায় কেউ জানে না।

যৌন সম্পর্কের পর ওইসব মেয়েদের ছেড়ে দেয় কিম, তবে কিমের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা বিয়ে করে ওইসব মেয়েকে। এছাড়া এক বিশেষ চীনা খাবার খেতে পছন্দ করেন কিম। আরও জানা যায়, পাক চোল ছদ্মনামে সুইজারল্যান্ডে পড়াশোনা করেছেন কিম জং উন।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি কিম পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা করার পরই দক্ষিণ কোরিয়ার এক গোপন জায়গায় বসে মিরর’কে এমন সাক্ষাৎকার দিয়েছেন হি নামে এক ব্যক্তি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *