বিগ ডাটার শুরুর গল্প

বিগ ডাটার শুরুর গল্পে আমি প্রথমেই বিসনেস পার্সপেক্টিভ থেকে শুরু করেছি , কারণ আমাদের মধ্যে হয়তোবা কেউ কেউ ভাবছেন আরে ! বিগ ডাটাতো মজার জিনিস ! আমিও একটু ট্রাই করি ক্যারিয়ারটাকে এই দিকে গড়তে। আমরা বিগ ডাটার বিসনেস ফিল্ডগুলো ভালো ভাবে বুজতে পারলে আমাদের জন্য ক্যারিয়ার হিসাবে বিগ ডাটা অনেক সহজ হয়ে যাবে আমি আশা রাখি। তো আজকের পর্বে একটু মজা দিয়েই শুরু করি,

আমাদের মধ্যে দেখি অনেকেই বিসনেস ডিল ,প্রেম রিলেশনশিপ  নিয়ে হা হুতাশ করে !!!

তাদের জন্য কাজ করছে  বিগ ডাটা! মেয়েটা কি পছন্দ করে, কি behavior কোন সিচুয়েশন করতে হবে , কখনও  নিজে বোরিং হয়ে যাচ্ছি কিনা , আলোচনার টপিক চেঞ্জ করতে হবে কিনা…. সব কিছুই Data মামা করে দিচ্ছে !!!

Believe it or not … see this video !!!

IBM তো অনেক আগেই দেখে দিয়েছে পুলিশ কিভাবে অপরাধ হওয়ার আগেইঘটনাস্থলে পৌঁছে যাচ্ছে “Police Use Analytics to Reduce Crime” ওখানে গিয়ে অপরাধ যে করতে চাই তার দিকে ফ্রেন্ডলি ভঙ্গিতে চেয়ে কফির অফার জানার জন্য ভিডিওটা দেখতে পারেন !

কিছুদিন আগে আমি একটা মেইল পেয়েছিলাম আমার এক  ভাইয়ের কাছ থেকে।  সে আমার বাসায় আসবে কবে এবং তার ট্রাভেল শিডিউল ডিটেলস নিয়ে একটা মেইল। আমার সাথে সে কিছুদিন ছিল।  তো যেদিন সে চলে যাবে, আমি একটা মেসেজ পাইলাম আমার স্মার্ট ফোনে গুগল থেকে !!! মেসেজটি ছিল আমার ভাইকে নিয়ে !

যে তার বাসা থেকে একটু দেরীতে বের হওয়া উচিত !  তার .৩০ pm এর প্লেন আসতে ৫৫ মিনিট ডিলে হবে আর তার এয়ারপোর্টে পৌঁছাতে ৪১ মিনিট লাগবে।কারণ, রাস্তায় কোনো ট্রাফিক নেই। আমি তো একদম অবাক ! গুগল কিভাবে জানে, আমার ভাই আমার সাথে থাকছে ? কবে সে যাবে ? আমার বাসার এক্সাক্ট লোকেশন মানে আমি কোথায় থাকি? ফ্লাইট ইনফরমেশন ট্রাফিক ইনফরমেশন কিভাবে সে জানে ?

তখন আমি বুজতে পারলাম আসলে এখানেই বিগ ডাটা এনালাইসিস এর খেলা ! আসলে আমি আর আমার ভাই মেইল দিয়ে কোনভার্সেশন করেছিলাম।  যেখানে আমার ভাই আমার সাথে কিছুদিন থাকবে এটা নিয়ে কথা হয়েছিল।  GPS গুগল ম্যাপ কেঅরডিনেট দিয়ে আমার স্মার্ট ফোনের লোকেশন ট্র্যাক করা হয়েছে , এবং গুগল বুজতে পেরেছে এটাই আমার হোম। আর রিয়েল টাইম ডাটা  এয়ারলাইন এর ডাটাবেস থেকে নিয়ে বুজতে পেরেছে যে প্লেন দিলে করবে।  এটা খুবই ভালো লেগেছে , কারণ আমার টাইম নষ্ট হলো না। কিনতু, অন্য দিকে আমার প্রাইভেসী সিকিউরিটি নিয়ে ভাবনা চলে আসলো।  কারণ গুগলতো আমার সব মেইল আমি কোথায় থাকি সবই জানে ! একচুয়ালী, এটাই বিগ ডাটা এনালাইসিস এর পাওয়ার !!! বিগ ডাটা এনালিটিক আসলে দুইদিকে ধারালো তরবারির মতো।

গ্লোরিয়া জিন্স কফি শপের নাম শুনেনি খুব কম লোকই পাওয়া যাবে ঢাকার এলিট সোসাইটিতে ! যা হোক, এখানে কফির প্রাইসটা একটু হাই অনেকেই এজন্য অসন্তষ্ট হয় গ্লোরিয়া জিনসের ওপর (আমি নিজেও কিনতু )     গ্লোরিয়া জিন্স তাদের মার্কেটটাকে বাড়ানোর জন্য নিউ ফ্ল্যাভর নিয়ে আসলো।  আর তারা টুইটার, ফেসবুকে মনিটর করতে লাগলো মানুষজন কি ভাবে ,তারা কি চাই ? তাদের এনালাইসিস তারা বুজতে পারলো টেস্ট ইজ ওকে বাট প্রাইস হাই।  তাই কিছু মানুষ  অসন্তষ্ট  প্রাইস নিয়ে। গ্লোরিয়া জিন্স এবার ফেইসবুক গ্রূপ ফুড ব্যাংকে একটা অফার দিয়ে কফির প্রাইস কমায় দিলো এবং আবার মনিটর করতে থাকলো মানুষের প্রতিক্রিয়া।  এবার দেখলো আরো মানুষ আরো বেশি ডিসপেয়ার্ড। তো, কাস্টমার কে রিয়েল টাইম মনিটর করার অ্যাডভান্টেজটা হলো খুবই কুইকলি বিসনেস ডিসিশন নেওয়া যাই পণ্য সেলস কিংবা প্রফিটের ক্ষেত্রে। 

আবার অন্যদিকে একটু তাকাই, আমরা অনেকেই অনলাইনে শপিং করে থাকি , কারণ অনেক সময় বেঁচে যাই। তো ধরেন, আপনি এমাজন থেকে শপিং করেন, আমাজন কিন্তু ঠিকই মনে রাখছে আপনি গত মাসে কি শপিং করেছেন,কোন প্রোডাক্ট গুলোতে আপনি ভিসিট করেছেন , কোন প্রোডাক্ট পেজে কতক্ষন ছিলেন ? আপনি হয়তো একটা ছুরি কিনবেন , তারা আপনাকে সাজেস্ট করবে ওই ছুরিটাকে শার্প রাখতে গেলে আপনাকে একটা শার্পনার কিনতে হবে। তারা কিনতু আপনার পছন্দের জিনিস গুলোই কিনতে সাজেস্ট করবে কারণ তারা জানে আপনি কি লাইক করেন !!!

উপরে বিগ ডাটা নিয়ে কিছু ট্রিপিক্যাল এক্সাম্পল টেনেছি এই জন্য যে বিগ ডাটা এনালয়টিকের পাওয়ারটা বুজতে পাড়ার জন্য।  আর যারা বিগ ডাটা নিয়ে কাজ করবেন, ক্যারিয়ার গড়বেন তারা বুজতেই পারছেন সময় এখন আপনাদের হাতে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *