এভ্রিল বাদ, ‌‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ হলেন জেসিয়া ইসলাম

জেসিয়া ইসলাম। ছবি: সংগৃহীত

‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতায় বিচারকদের নম্বরপত্রে এগিয়ে না থাকার পরও মুকুট জয় ও বিয়ের কথা লুকিয়ে রাখার মতো বিতর্ককে সঙ্গী করে জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতায় যাচ্ছেন কিনা তা নিয়ে জল্পনা আগেই ছিল। পরিশেষে ডিভোর্স ও নানা সামলোচনার মুখে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’র মুকুট হারাতে হল জান্নাতুল নাঈম এভ্রিলকে। তার বদলে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ হিসেবে নাম ঘোষণা করা হয়েছে জেসিয়া ইসলামের।

আজ (বুধবার) হোটেল ওয়েস্টিনের বলরুমে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে নতুন বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হয়। অনুষ্ঠিত ওই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’র চূড়ান্ত রাউন্ডের সকল বিচারক ও অমিকন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মেহেদী হাসান ও অন্তর শোবিজের চেয়ারম্যান স্বপন চৌধুরী। এ সময় তারা সাংবাদিকদের সামনে ওইদিন বিজয়ীর ভুল নাম ঘোষণার ব্যখ্যাও দেন।

এ সময় সেরা দশ প্রতিযোগীদের নয়জন থাকলেও অনুপস্থিত ছিলেন এভ্রিল। বিচারকদের রায়ের ভিত্তিতে শীর্ষ সুন্দরী বাছাই করা হয়। এখানে বিচারকরা বিজয়ীর নাম ঘোষণার তার হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

আগামী নভেম্বরে চীনে অনুষ্ঠেয় ৬৭তম মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধি নির্বাচনে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’র চূড়ান্ত পর্ব হয় গত শুক্রবার রাতে। রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে গ্র্যান্ড ফিনালে বিজয়ী হিসেবে এভ্রিলের নাম ঘোষিত হয়। সেখানে প্রথম রানার আপ ঘোষিত জেসিয়া ইসলাম বিচারকদের রায়ে প্রথম হয়েছিলেন বলে দুইজন বিচারকের বরাত দিয়ে একটি পত্রিকায় আসে। প্রথম ঘোষণাকে আয়োজকরা ‌‘ভুল’ হিসেবে আখ্যায়িত করলে শুরু হয় বিতর্ক। পরে গণমাধ্যমে এভ্রিলের বিয়ের খবর প্রকাশ হওয়ার পর ফেসবুক লাইভে এসে ডিভোর্সের কথা স্বীকার করে নেন এভ্রিল।

ভিডিও:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *